7 March- 2021, 12:06 pm ।। ২২শে ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

betaginews24.com
betaginews24.com

বেতাগীতে হত্যার চেষ্টা, লুট, গাছ কর্তন ও ভাংচুর

সাইদুল ইসলাম মন্টু ।। বেতাগীতে আপন মামাকে হত্যার চেষ্টা, ঘেরের মাছ লুট, ১৬ ‘শত কলাগাছ কর্তন, ৫ হাজার মিস্টি কুমড়া গাছের ক্ষতিসাধন এবং ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বৃহাস্পতিবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে প্রধান আসমীকে গ্রেফতারের পর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার বিবিচিনি ইউনিয়নের পুটিয়াখালী গ্রামের মো: হোছেন মল্লিকের ছেলে মো: জাফর মল্লিক (৩৫) ২০১৬ সালে তার পৈত্রিক সম্পত্তি ও ব্যক্তি মালিকনাধীন লীজ নেওয়া ৩ একর জমিতে মাছের ঘের ও সবজি আবাদ করে আসছিল। এর দেখাশুনার কাজে একই গ্রামের মোবারেক হাওলাদারের ছেলে মো: এমাদুল হক (২৫) কে নিয়োজিত করেন।
এক পর্যায় ঘেরের প্রতি তার লোভ জম্মায়। ঘটনার দুই মাস আগে ঘেরের ভেতর থেকে ১ লক্ষাধিক টাকার মাছ লুট করে নিয়ে বিক্রি করে। কিন্ত সর্ম্পকে তারা আপন মামা-ভাগিনা তাই এ নিয়ে বারাবারি না করে চেপে যায়। গত ২ এপ্রিল ‘২০১৮ রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে ভাগিনা মো: এমাদুল হক মুখোশধারী অজ্ঞাত ৭ জন লোকজন নিয়ে এসে ঘেরে পাহাড়া দেওয়ার ঘরের মধ্যে মামা জাফর মল্লিক কে আটকিয়ে বিশ্রামের বিছানায় থাকা কম্বল মুখে চেপে ধরে এলোপাথারী মারধর করে। এক পর্যায় গামছা দিয়ে মুখ ও দ‘ুহাত বেঁধে টানা-হেচড়া করে ঐ ঘর থেকে জোরপূর্বক বের করে বিষখালী নদীর তীরে ফুলতলা চরে নিয়ে যায়। খুন করার পর ঢুকরো ঢুকরো করে নদীতে ফেলে দেওয়ার হুমকি দেয়। প্রান ভিক্ষা চাইলে পুনরায় ঘেরের ভেতরে নিয়ে বিষয়টি কোথাও না বলার জন্য এবং সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়।
বাড়িতে না ফেরায় খোজাখুজিঁর পর পরিবারের লোকজন ৩ এপ্রিল মুখবাঁধা অচেতনবস্থায় ঘেরের ভেতর থেকে উদ্ধার করে বরগুনা জেণারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সে বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় এমাদুল হকসহ ৭ জন অজ্ঞাত আসামী করে বেতাগী থানায় একটি মামলা করে গোপনীয়তা বজায় রাখে (মামলা নং- ৩, তারিখ: ০৭-০৪-২০১৮ ইংরেজি)।
মো: জাফর মল্লিকের ছোট ভাই মোস্তফা মল্লিক অভিযোগ করেন, এর কিছুদিন যেতে না যেতেই বৃহাস্পতিবার (১২ এপ্রিল) রাতে ঘেরের চারপাশে লাগানো ১৬ ‘শত সবরি কলাগাছ রাতের আধাঁরে কর্তন করে পাশেই ফেলে রাখে এবং ঘেরে পাহাড়া দেওয়র ঘর ভাংচুর করে। ঐ সময় তাদের তান্ডবে ৫ হাজার মিস্টি কুমড়া গাছেরও ক্ষতিসাধিত হয়। এর মধ্যে অধিকাংশ গাছেই কলা ধরেছে। এ সময় ঘেরের পাওয়ারপাম্প সহ কৃষি উপকরণ নিয়ে যায়। এতে তার সারে ৪ লাখ টাকার ক্ষতি হয়।
বেতাগী থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়রম্যান অধ্যাপক নওয়াব হোসেন নয়ন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বেতাগী থানার দায়িত্ব প্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ ও তদন্ত কমকর্তা মো: হুমায়ূন কবির এর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মারধর ও স্ট্যাম্প লিখে নেওয়ার ঘটনায় ১ আসামীকে গ্রেফতারের পর বরগুনা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অন্য ঘটনায় মামলার প্রস্ততি চলছে।

Sharing. . . .




More News Of This Category


সংবাদ শিরোনামঃ
  Icone বেতাগীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আলোচনা সভা  Icone বেতাগীতে মেসার্স হুমায়ুন ষ্টোর সম্প্রসারণ উপলক্ষে দোয়া মোনাজাত  Icone বেতাগীতে ফাইলেরিয়া রোগের উপর প্রশিক্ষণ  Icone বেতাগীতে সন্ত্রাস-মাদকবিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ  Icone বেতাগী খাদ্যের নিরাপদতা শীর্ষক সেমিনার  Icone বেতাগীতে মুজিববর্ষে ১২ জন গৃহহীন পেলেন শেখ হাসিনার উপহার ঘর  Icone বেতাগীতে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত  Icone বেতাগী নাজেম আলী স্মৃতি ফাউন্ডেশনে পৌরসভার নয়া মেয়র ও কাউন্সিলরদের সংবধর্না  Icone বাংলাদেশ কমার্শিয়াল প্রকিউরমেন্ট ও সাপ্লাই-চেইন প্রফেশনালসে বার্ষিক ফ্যামিলি পিকনিক  Icone বেতাগীতে কৃষক মাঠ দিবস উদযাপন ও উন্নত জাতের বীজ বিতরণ